1. admin@chattogramvoice.com : CbCvVcgr :
  2. editior@chattogramvoice.com : FormanchYtv :
বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ০২:০৯ অপরাহ্ন

মেসার্স ডায়হান এক্সিম থেকে বেআইনিভাবে দ্বিগুন ট্যাক্স দাবির অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

নিজস্ব প্রতিবেদক,চট্টগ্রাম:
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০২৩
  • ৭৮ Time View

নিজস্ব প্রতিবেদক,চট্টগ্রাম:

অনৈতিক সুবিধা আদায়ে ব্যর্থ হয়ে বেআইনি ও উদ্দেশ্যমূলক ডাবল ট্যাক্স দাবির অভিযোগ উঠেছে চট্টগ্রাম কাস্টম অ্যাক্সাইজ অ্যান্ড ভ্যাট কমিশনারেটের বিরুদ্ধে।

সোমবার (১১ ডিসেম্বর) চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের এস রহমান হলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন চট্টগ্রাম কাগজ ও সেলোফিন ব্যবসায়ী গ্রুপ এবং বাংলাদেশ পেপার ইম্পোর্টার্স এসোসিয়েশন।

অ্যাসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি মোহাম্মদ বেলাল সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন।
চট্টগ্রাম কাস্টমস, এক্সাইজ ভ্যাটের হয়রানির কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমদানি পণ্যে ১৫ শতাংশ ভ্যাটসহ সাকুল্যে ২৬ দশমিক ৬৭ শতাংশ হারে অগ্রীম রাজস্ব পরিশোধ করে মুদ্রণ শিল্পের কাঁচামাল এনেছে চট্টগ্রামের মেসার্স ডায়হান এক্সিম নামে একটি প্রতিষ্ঠান।

তবে মূল্য সংযোজন না দেখিয়ে ভুলবশত ৩৩ দশমিক ৭৭ শতাংশ মূল্য সংযোজন দেখানো হয়েছে। ওই ভুলটি শুনানিকালে কমিশনারের কাছে তুলে ধরা হয়েছে।
ব্যবসায়িরা দাবি করছেন প্রকৃতপক্ষে ঘোষণাপত্রে উল্লেখিত ৩৩ দশমিক ৭৭ শতাংশ মূল্য সংযোজন করে আমদানিকৃত পণ্য বিক্রয় করা হতো তাহলে অবশ্যই মূসক আইনের ৯ ধারা মতে কর রেয়াত গ্রহণ করা হতো।

ঘোষণা পত্রে অনিচ্ছাকৃত ভুলের কারণে মূল্য সংযোজন ২৬ দশমিক ৬৭ শতাংশ না লিখিয়া ৩৩ দশমিক ৭৭ শতাংশ লিখিত হয়েছে।
এদিকে, ওই মূল্য সংযোজন করের আলোকে ২০১৭ সালের ১৮ জুন ওই চালানের উপর ১ কোটি ৩৮ লাখ ৬৬ হাজার ৮১৮ টাকা আদায়যোগ্য দাবিনামা পত্র প্রদান করেন চট্টগ্রাম ভ্যাট পাঁচলাইশ সার্কেল থেকে।

ওই দাবিনামার প্রেক্ষিতে পরের মাসের ১৫ জুলাই ডায়হান এক্সিম লিখিত জবাব প্রদান করেন। পরে ডেপুটি কমিশনার ওই টাকার বিপরীতে একটি কমিটি গঠন করেন।
সংবাদ সম্মেলনে দাবি করা হয়, কমিটি থেকে কোনো প্রকার রিপোর্ট প্রদান না করে প্রায় চার বছর অতিবাহিত হওয়ার পর ২০২২ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি রাজস্ব কর্মকর্তা পুনরায় মূসক পরিশোধের চিঠি প্রদান করেন।

পরবর্তীতে ন্যায় নির্ণায়ক চট্টগ্রাম কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট, কমিশনার কোনো প্রকার কারণ দর্শানো নোটিশ না দিয়ে চলতি বছরের ৭ সেপ্টেম্বর দাবিকৃত কর বে-আইনিভাবে একতরফাভাবে বহুগুণ বৃদ্ধি করে ৬ কোটি ৪৯ লাখ ৪৯ হাজার ৭২৮ টাকার আদেশ প্রদান করেন।
যা আইনানুগ হয়নি বলে দাবি করে সংবাদ সম্মেলনে ব্যবসায়িরা বলেন, প্রতিষ্ঠানকে শোকজ করে আত্মপক্ষ সমর্থনেরও সুযোগও দেওয়া হয়নি।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের যুগ্ম সম্পাদক কুতুব উদ্দিন, সাইফুল আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুল আলম, সদস্য এনামুল হক এনাম ও রফিকুল আলম।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021
Theme Customized By LiveTV